জাতীয়

খালেদা জিয়াকে সংসদে যাওয়ার পরামর্শ দিলেন ভাষা মতিন

ঢাকা: রাজপথের পাশাপাশি চলমান আন্দোলনকে জোরদার করতে জাতীয় সংসদেও যোগ দিতে খালেদা জিয়াকে পরামর্শ দিয়েছেন ভাষাসৈনিক আবদুল মতিন। মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে তাকে দেখতে গেলে বিরোধী দলের নেতা ও বিএনপি’র চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে এ পরামর্শ দেন তিনি।

মঙ্গলবার রাত ৮টায় রাজধানীর মোহাম্মদপুর ১১ নম্বর রোডের ১৭/১ মোহম্মাদিয়া হাউজিংয়ে ভাষাসৈনিক আব্দুল মতিনের বাসায় যান খালেদা।

মোহাম্মদপুর থেকে ফিরে গুলশানে খালেদা জিয়ার প্রেস সচিব মারুফ কামাল খান সাংবাদিকদের বলেন, ‘একুশে ফেব্রæয়ারির এই মহান দিনে প্রবীণ ভাষাসৈনিক আবদুল মতিনের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে তার বাসায় যান খালেদা জিয়া। এ সময় ভাষাসৈনিক বিরোধী দলীয় নেতাকে বিভিন্ন পরামর্শ দেন।’

ভাষা মতিন খালেদাকে বলেন, ‘আমি মনে করি, আপনার (খালেদা জিয়া) নেতৃত্বে চলমান আন্দোলন সফল হবে। আপনি সামনে এগিয়ে চলুন। জনগণ আপনার সঙ্গে আছে।’

জাতীয় সংসদে যোগ দেওয়ার পরামর্শ দিয়ে আবদুল মতিন খালেদা জিয়াকে আরো বলেন, ‘রাজনীতিতে অবশ্যই নীতি থাকতে হবে। তবে সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে কিছু কৌশল অবলম্বন করার প্রয়োজন রয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘সংসদের ভেতরে-বাইরে চলমান আন্দোলনকে প্রসারিত করতে হবে। সরকারি দল একতরফাভাবে সংসদে যাচ্ছেতাই বলে যাচ্ছে। সেজন্য আপনাকে প্রতিবাদ জানাতে সংসদে যেতে হবে। প্রতিবাদ জানিয়ে প্রয়োজনে ওয়াক আউট করে আবার সংসদে যাবেন।’

ফারুক কামাল খান জানান, ‘জবাবে খালেদা জিয়া বলেছেন, আপনি (আবদুল মতিন) এদেশ প্রতিষ্ঠার জন্য দীর্ঘ সংগ্রাম করেছেন। আপনার দীর্ঘ অভিজ্ঞতা আমাদের পাথেয় হবে।’

এর আগে ওই বাসায় পৌঁছালে আব্দুল মতিনের সহধর্মিণী গুলবদন নেছা মনিকা, তার কন্যা বিশিষ্ট নাট্যকার মাতিয়া বানু শুকু ও আরেক কন্যা মালিহা শুভন খালেদা জিয়াকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান।

এ সময় আব্দুল মতিনের সঙ্গে কিছুক্ষণ কথা বলেন খালেদা জিয়া। তার কুশলাদি জিজ্ঞাসা করেন। নেন শারীরিক সুস্থতার খোঁজ-খবর। কামনা করেন দীর্ঘায়ু।

খালেদা জিয়ার সঙ্গে ছিলেন বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান, ঢাকা মহানগর বিএনপি’র সদস্য সচিব আব্দুস সালাম, যুবদলের সভাপতি সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খালেদা জিয়ার প্রেস সেক্রেটারি মারুফ কামাল খান সোহেল, প্রেস উইং কর্মকর্তা শায়রুল কবীর খান, বিএনপি’র জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য মেজর (অব.) মঞ্জুরুল কাদের, মোহাম্মদপুর থানা বিএনপি’র আহŸায়ক আব্দুল মতিন, বিএনপি নেতা আবু নাছের মোহাম্মদ রহমাতুল্লাহ প্রমুখ।

উল্লেখ্য, ১৯৫২ সালের মহান ভাষা আন্দোলনে যে ক’জন ভাষাবীর সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন, তাদের মধ্যে আব্দুল মতিন অন্যতম। বয়োবৃদ্ধ এই ভাষাসৈনিক এখনো কালের স্বাক্ষী হয়ে ভাষাপ্রেমিক বাঙালি জাতির ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা নিয়ে বেঁচে আছেন।

Advertisements

About EUROBDNEWS.COM

Popular Online Newspaper

Discussion

Comments are closed.

%d bloggers like this: