জাতীয়

যুদ্ধাপরাধীদের বিচার দাবিতে শেষ হলো বিশ্ব বাঙালি সম্মেলন

ঢাকা: দেশে-বিদেশে বসবাস করা বাংলা ভাষাভাষি মানুষের মাঝে দেশপ্রেম ও ভালোবাসার বন্ধনকে আরো সুদৃঢ় করতে ঢাকায় আয়োজিত তিন দিনের বিশ্ব বাঙালি সম্মেলন শেষ হলো মঙ্গলবার।

অমর একুশে ফেব্রুয়ারি মহান শহীদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে ‘একুশ মানে মাথা নত না করা’ শ্লোগান নিয়ে আয়োজিত সম্মেলনের সমাপনী দিনে রাজধানীর ধানমণ্ডি রবীন্দ্র সরোবর মঞ্চের সমাপনী অনুষ্ঠানে ঘুরে ফিরে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবিই উচ্চারিত হয়। বেঙ্গলি ইন্টারন্যাশনাল আয়োজিত এ সম্মেলনে বিশ্বের ২০টি দেশের দুই শতাধিক প্রবাসী বাঙালি ও বিদেশি শিল্পীরা অংশ নেন।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি শামসুল হকের সভাপতিত্বে সমাপনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি নাসির উদ্দিন ইউসুফ, বেঙ্গলি ইন্টারন্যাশনাল’র সদস্য সচিব গোলাম কুদ্দুস, প্রতিষ্ঠাতা লন্ডন প্রবাসী ড. বেণু ভূষণ চৌধুরী, সদস্য আয়ারল্যাল্ডের নাগরিক শান্তিশ্রী, কার্যকরি সদস্য হাসান আরিফ, যুক্তরাজ্য বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি সৈয়দ মাহমুদুল হক প্রমুখ।

বেঙ্গলি ইন্টারন্যাশনাল’র সদস্য সচিব গোলাম কুদ্দুস বলেন, ‘সারা বিশ্বব্যাপী মানুষ যখন যুদ্ধাপরাধীদের বিচার দেখতে তাকিয়ে রয়েছেন, তখন স্বাধীনতা বিরোধীরা বিচার নস্যাৎ করতে অপতৎপরতা চালাচ্ছে। আগামী একুশে ফেব্রুয়ারিতে আমরা যুদ্ধাপরাধীদের বিচার কার্যকর দেখতে চাই। আমরা দেখতে চাই জাতি কলঙ্কমুক্ত হয়েছে।’

বেঙ্গলি ইন্টারন্যাশনাল’র সভাপতি শামসুল হক বলেন, ‘স্বাধীনতা ও একুশের চেতনার কথা বলে আমরা বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা প্রবাসী বাঙালিদের এ সম্মেলনে অংশগ্রহণে উদ্বুদ্ধ করেছি। আগামী একুশের আগে আমরা আবারও একত্রিত হবো, তখন যেন আমরা উল্লাস করতে পারি এজন্য যে, স্বাধীনতা বিরোধীদের বিচার হয়েছে।’

রোববার রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে তিন দিনের বিশ্ব বাঙালি সম্মেলনের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সমাপনী অনুষ্ঠানে যুক্তরাজ্য ও ভারত থেকে আসা শিল্পীরা সংগীত ও নৃত্য পরিবেশন করেন। একুশে ফেব্রুয়ারি ও একই সঙ্গে ছুটির দিন হওয়ায় সমাপনী অনুষ্ঠান দেখতে রবীন্দ্র সরোবরে ছিল মানুষের উপচেপড়া ভিড়।

Advertisements

About EUROBDNEWS.COM

Popular Online Newspaper

Discussion

Comments are closed.

%d bloggers like this: