আন্তর্জাতিক

দিল্লিতে মনমোহনের সঙ্গে বৈঠক: ফারাক্কা দিয়ে বেশি পানি আসায় মমতার ক্ষোভ

দিল্লি: ফারাক্কা বাঁধ দিয়ে বাংলাদেশে বেশি পানি প্রবেশ করায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের কাছে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
আজ বুধবার জি নিউজের অনলাইনে প্রকাশিত এক খবরে বলা হয়েছে, আজ বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে দিল্লিতে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে এক বৈঠকে মমতা এই ক্ষোভ প্রকাশ করেন। জাতীয় সন্ত্রাস দমন কেন্দ্র (এনসিটিসি), ফারাক্কা বাঁধ ও জিটিএ প্রসঙ্গে বৈঠকে আলোচনা হয়েছে।
বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এসব কথা বলেছেন। এ সময় জিটিএ ও ফারাক্কা বাঁধ নিয়ে তাঁর রাজ্যের ওজর আপত্তির কথা প্রধানমন্ত্রীকে জানিয়েছেন তিনি।
ফারাক্কা বাঁধ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী মনমোহনের কাছে ক্ষোভ প্রকাশ করে মমতা বলেন, ফারাক্কার স্লুইস গেট ভেঙে যাওয়ায় এ রাজ্যের প্রাপ্য জলের বড় অংশই বাংলাদেশে চলে যাচ্ছে। এতে ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গ।
মমতা প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংকে জানিয়েছেন, এতে হুগলি নদীর জলস্তর নেমে যাওয়ায় কলকাতা ও হলদিয়া বন্দরে জাহাজ চলাচল বন্ধ হতে বসেছে। পাশাপাশি গোটা রাজ্যে সেচ ও পানীয় জলের সংকটের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।”এ ঘটনার জন্য ফারাক্কা ব্যারেজ প্রজেক্টের সরকারি আধিকারিকদের দায়ী করে প্রধানমন্ত্রীর কাছে উচ্চপর্যায়ের তদন্ত দাবি করেছেন তিনি।
এনসিটিএ নিয়ে রাজ্যের অবস্থান প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্পষ্ট করে মমতা বলেন, ‘এনসিটিএ কার্যকর হলে দেশের যুক্ত রাষ্ট্রীয় কাঠামোকে অবমাননা করা হবে। তাই আমরা কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করছি।’ বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরা এনসিটিসির বিরোধিতা করায় এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত গ্রহণের আগে সব রাজ্যের সঙ্গে আলোচনা করা হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। এ ব্যাপারে তিনি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পি চিদাম্বরমকে নির্দেশ দিয়েছেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।
জিটিএ প্রসঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অভিযোগ করে বলেন, রাজ্যের তরফে সব উদ্যোগ সম্পূর্ণ হলেও কেন্দ্রের গড়িমসিতে জিটিএ গঠনের প্রক্রিয়া বিলম্বিত হচ্ছে। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী তাঁকে আশ্বস্ত করে জানিয়েছেন, দুই দিনের মধ্যে সব প্রশাসনিক কাজ সম্পূর্ণ করে বিলটি অনুমোদনের জন্য রাষ্ট্রপতির কাছে পাঠানো হবে। রাষ্ট্রপতি স্বাক্ষর করে দিলে জিটিএর নির্বাচনে আর কোনো বাধা থাকবে না।
তবে রাজ্যের জন্য বিশেষ অনুদান নিয়ে আজ কোনো আলোচনা হয়নি বলে জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, কোনো দিন কেন্দ্রের কাছে কোনো বিশেষ প্যাকেজ চায়নি রাজ্য।

Advertisements

About EUROBDNEWS.COM

Popular Online Newspaper

Discussion

Comments are closed.

%d bloggers like this: