জেলার খবর

অন্তঃসত্ত্বা প্রথম স্ত্রী হাজির হলেন স্বামীর বিয়ের অনুষ্ঠানে !

ঢাকা: শুক্রবার দুপুর ৩টার দিকে মাগুরা শহরের মালঞ্চি কমিউনিটি সেন্টারে এ ঘটনা ঘটে। বিনা অনুমতিতে স্বামী শফিকুল আজম মিশন দ্বিতীয় বিয়ে করতে যান। খবর পেয়ে বিয়ের অনুষ্ঠানে ছুটে আসেন অন্তঃসত্ত্বা প্রথম স্ত্রী শামসুন্নাহার।

শামসুন্নাহার বৃষ্টি জানান, ৪ বছর আগে ঢাকায় বায়িং হাউজে কর্মরত শফিকুল আজম মিশন ভালবেসে তাকে বিয়ে করেন। মাগুরার শত্রুজিতপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও দক্ষিণ মাগুরা বিএনপির আহবায়ক মসিউল আজম বাচ্চুর ছেলে শফিকুল আজমের সঙ্গে তিনি ঢাকায় ভাড়া বাসায় থাকতেন। বর্তমানে তিনি ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা।

বৃষ্টি বলেন, ‘কিছুদিন আগে আমি জানতে পারি আমার স্বামী শফিকুল আজম মাগুরার স্টেডিয়ামপাড়ার বিএনপি নেতা মোস্তাক আহমেদের মেয়ে শারমিন সুলতানা সীমাকে বিয়ে করবেন। এ সময় আমি শফিকুল আজমকে বিষয়টি জিজ্ঞেস করলে প্রথমে সে বিষয়টি এড়িয়ে যায়।  পরে জানায়, তার বাবা অসুস্থ থাকায় তাদের গোপন এ বিয়ের কথা বাড়িতে জানাতে পারছে না’।

উপায়ন্তর না দেখে বিষয়টি শারমিন সুলাতানার বাবাকে জানান বৃষ্টি। পরে ঢাকা মহিলা পরিষদে এ বিষয়ে অভিযোগও দেন তিনি। কিন্তু তাতেও কোনো কাজ হয়নি।

এদিকে শুক্রবার শামসুন্নাহার মহিলা পরিষদের সদস্যদের নিয়ে বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত হলে শফিকুল আজমের পরিবারের লোকজনের সঙ্গে তাদের বাকবিত-া হয়। পরে উত্তেজনাকর পরিস্থিতি তৈরি হলে শফিকুল আজম কৌশলে সেখান থেকে পালিয়ে যান।

এ ব্যাপারে মাগুরা মহিলা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক কাজী লাবনী জামান বলেন ‘বিষয়টি নিয়ে শামসুন্নাহারের পক্ষে আমরা আইনগতভাবে লড়বো। শামসুন্নাহার ও শফিকুল আজমের বিয়ের সব কাগজপত্র আমাদের কাছে আছে’।

এদিকে ঘটনাস্থলে উপস্থিত সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সাখাওয়াত হোসেন বাংলানিউজকে বলেন, ‘ভুক্তভোগী শামসুন্নাহারের লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে যথাযথ আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।’

এ বিষয়ে অভিযুক্ত শফিকুল আজম মিশনের ভগ্নিপতি টিপু মোল্যা বলেন-‘শামসুন্নাহারের সঙ্গে বিয়ের বিষয়টি আমরা জানি। এটি পারিবারিকভাবে হয়নি। আমরা বিষয়টি নিষ্পত্তির চেষ্টা করছি।’

Advertisements

About EUROBDNEWS.COM

Popular Online Newspaper

Discussion

Comments are closed.

%d bloggers like this: