খেলা

প্রথম দল হিসেবে সেমিফাইনালে রাজশাহী

অনলাইন প্রতিবেদক: টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে ১০৬ রান মাথাব্যথার কিছু নয়। দুরন্ত রাজশাহীর জন্যও তা মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়ায়নি। শীর্ষস্থানীয় ব্যাটসম্যানদের মজবুত পারফরম্যান্সের ওপর ভর করে খুলনা রয়েল বেঙ্গলসকে ৮ উইকেটে হারিয়ে প্রথম দল হিসেবে বিপিএলের সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছে দুরন্ত রাজশাহী।
খুলনার মামুলি সংগ্রহের বিপরীতে মারলন স্যামুয়েলস, শাহজাইব আহমেদ ও জুনায়েদ সিদ্দিকের ব্যাটিং পারফরম্যান্সের বদৌলতে রাজশাহী ম্যাচটা জিতেছে প্রায় ৬ ওভার হাতে রেখেই। বিপিএলে এত প্রতিদ্বন্দ্বিতাহীন ম্যাচ হয়েছে কি না, সেটা ভাববার বিষয়।
স্যামুয়েলসের ম্যাচ জেতানো ইনিংসটি ৫০ রানের। জয়ের বন্দরের একেবারে কাছে এসে তিনি লং অনে ধরা পড়েন আন্দ্রে অ্যাডামসের হাতে। বোলার ছিলেন নাজমুল হোসেন মিলন। শাহজাইব শুরুটা দারুণ করে দিয়েছিলেন। মাত্র ১২ বলে ২৮ রান করে সাকিব আল হাসানের বলে স্ট্যাম্পড হন। জুনায়েদ স্থিতধী ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন ২৯ রানে।
এর আগে, সেমিফাইনাল নিশ্চিত করার ব্রত নিয়ে দুরন্ত রাজশাহীর বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে মাঠে নেমেছিল খুলনা রয়েল বেঙ্গলস। কিন্তু ব্যর্থতার ষোলোকলা পূর্ণ করে প্রতিযোগিতার আগে সবচেয়ে ব্যালান্সড দল হিসেবে বিবেচিত দলটিই ইনিংস শেষ করে ১০৬ রানে।
টসে জিতে ব্যাট করে খুলনা রয়েল বেঙ্গলস। কিন্তু মোহাম্মদ সামির প্রথম ওভারের দ্বিতীয় বলেই তাদের পতনের শুরু। সামির একটি দুর্দান্ত বলে এলবিডব্লিউ হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন সনাত্ জয়াসুরিয়া। ইনফর্ম শিবনারায়ণ চন্দরপল আজ খেলেননি। তাঁর বদলে ওপেনিংয়ে নেমে জয়াসুরিয়া বিপদেই ফেলে দিয়ে যান খুলনাকে। জয়াসুরিয়ার ব্যর্থতা যেন পেয়ে বসল খুলনাকে। এর পরক্ষণেই বিদায় হার্শেল গিবসের। উইকেট শিকারি এবার আবদুল রাজ্জাক। এই পাকিস্তানি অলরাউন্ডারের একটি বল পুল করতে গিয়ে শর্ট কভারে শাহজাইব আহমেদের হাতে ক্যাচ তুলে দেন তিনি। ৫ রানে ২ উইকেট হারিয়ে খুলনা যখন ধুঁকছে তখন ডুয়াইন স্মিথ, সাকিব আল হাসান ও নাসির হোসেনের ওপর ছিল ভরসা। কিন্তু তাঁরাও ব্যর্থ। স্যামুয়েলসকে তুলে মারতে গিয়ে সামির হাতে ধরা পড়েন স্মিথ। সাকিব বোল্ড হন সাকলাইন সজীবের বলে। প্রত্যাশার চাপেই কিনা নাসির হোসেন জিম্বাবুইয়ান অরভিনকে কাট করতে গিয়ে পয়েন্টে ধরা পড়লেন সাব্বিরের হাতে।
চরম বিপর্যয়কর পরিস্থিতিতে স্রোতের বিপরীতে একাই লড়ে গেলেন আইরিশ নেইল ও ব্রেইন। তাঁর ৩৯ বলে ৩৫ রান কেবল মানই বাঁচিয়েছে খুলনা রয়েল বেঙ্গলসের। নেইল ও ব্রেইনের ইনিংসটি না হলে হয়তো এক শর অনেক নিচেই শেষ হয়ে যেত খুলনার ইনিংস। ব্রেইন ফিরে যান আরভিনের বলে।
আগের ম্যাচে ভালো করেছিলেন নাজমুল। তাঁকে ফেরান তাইজুল। আন্দ্রে অ্যাডামস অদ্ভুতভাবে বোল্ড হন সেই অরভিনের বলে। বিপিএলের প্রথম দিকে মাত্র দুটি ম্যাচ খেলা অরভিন আজ রাজশাহীর বোলিং হিরো।
রাজশাহীর আরেক বোলিং হিরো মোহাম্মদ সামিও। নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে তিনি তুলে নেন ৩ উইকেট মাত্র ১৬ রানের বিনিময়ে। অরভিন ৩ উইকেট নিয়েছেন ১৯ রানে। এ ছাড়া একটি করে উইকেট নিয়েছেন আবদুল রাজ্জাক, মারলন স্যামুয়েলস, সাকলাইন সজীব, তাইজুল ইসলাম। সব মিলিয়ে বল হাতে দারুণ সময়ই কাটিয়েছেন দুরন্ত রাজশাহীর বোলাররা।

Advertisements

About EUROBDNEWS.COM

Popular Online Newspaper

Discussion

Comments are closed.

Advertisements

Calendar

February 2012
M T W T F S S
« Jan   Mar »
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
272829  
%d bloggers like this: