খেলা

ফাইনালে বরিশাল বার্নার্সের প্রতিপক্ষ ঢাকা গ্ল্যাডিয়েটর্স

ঢাকা, ফেব্র“য়ারি ২৮  – দ্বিতীয় সেমিফাইনালে খুলনা রয়েল বেঙ্গলসকে ৯ রানে হারিয়ে বাংলাদেশ প্রিমিয়াল লিগের (বিপিএল) ফাইনালে উঠেছে ঢাকা গ্ল্যাডিয়েটর্স। বুধবার সন্ধ্যা ছয়টায় ফাইনালে ঢাকা গ্ল্যাডিয়েটর্সের প্রতিপক্ষ বরিশাল বার্নার্স।

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে আজহার মেহমুদের অর্ধশতকের সুবাদে ৪ উইকেটে ১৯১ রান করে ঢাকা গ্ল¬্যাডিয়েটর্স। জবাবে অধিনায়ক সাকিব আল হাসান অর্ধশতক করে অপরাজিত থাকলেও ৭ উইকেটে ১৮২ রানের বেশি করতে পারেনি খুলনা রয়েল বেঙ্গলস।

লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে দলীয় ৫ রানে হার্শেল গিবস বিদায় নিলে শুরুতেই চাপে পড়ে যায় খুলনা রয়েল বেঙ্গলস। দ্বিতীয় উইকেটে মোহাম্মদ হাফিজ (২৪) ও শিবনারায়ন চন্দরপলের ৪৮ রানের জুটিতে শুরুর ধাক্কা কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করছিলো তারা।

কিন্তু দলীয় ৫৩ রানে হাফিজ এবং আর মাত্র দুই রান যোগ হওয়ার পর চন্দরপল ও ডোয়াইন স্মিথ (১) বিদায় নিলে আবারো চাপে পড়ে যায় খুলনার দলটি।

এরপর নাসির হোসেনের (২৮ বলে ৩৫ রান) সঙ্গে সাকিবের ৮৭ রানের জুটি রয়েল বেঙ্গলসকে জয়ের স্বপ্ন দেখাচ্ছিলো। কিন্তু দলীয় ১৪২ রানে নাসিরের বিদায়ের পর আর কেউ সাকিবকে যোগ্য সহায়তা দিতে পারেননি। তাই ৮৬ রানে অপরাজিত থেকেও এক রাশ হতাশা নিয়ে ফিরতে হয় খুলনা রয়েল বেঙ্গলসের অধিনায়ককে। ৪১ বলের চমৎকার ইনিংসটি ৯টি চার ও ৪টি ছক্কায় সাজানো।

৩০ রানে ৩ উইকেট নিয়ে ইলিয়াস সানি ঢাকা গ্ল¬্যাডিয়েটর্সের সেরা বোলার।

এর আগে ব্যাট করতে নেমে ২২ রানে ২ উইকেট হারিয়ে শুরুতে চাপে পড়ে যায় ঢাকা গ্ল¬্যাডিয়েটর্স। তবে তৃতীয় উইকেটে ইমরান নাজিরের (২৫ বলে ৪১ রান) সঙ্গে মেহমুদের ৪১ রানের জুটিতে ঐ ধাক্কা সামলে ওঠে তারা।

এরপর মোহাম্মদ আশরাফুলের সঙ্গে মেহমুদের (৬৫) ৭২ রানের চতুর্থ উইকেট জুটি বড় সংগ্রহের ভিত গড়ে দেয় ঢাকা গ্ল¬্যাডিয়েটর্সের। ম্যাচ সেরা মেহমুদের ৩৯ বলের আক্রমণাত্মক ইনিংসে ৬টি চার ও ৩টি ছক্কা।

মেহমুদের বিদায়ের পর শহীদ আফ্রিদির (১১ বলে অপরাজিত ২৭ রান) সঙ্গে আশরাফুলের অবিচ্ছিন্ন ৫৬ রানের জুটি দু শর কাছাকাছি পৌঁছে দেয় ঢাকা গ্ল¬্যাডিয়েটর্সকে। ৩৩ বলে ৪টি চার ও একটি ছক্কায় ৪৭ রানে অপরাজিত থেকে যান আশরাফুল।

Advertisements

About EUROBDNEWS.COM

Popular Online Newspaper

Discussion

Comments are closed.

%d bloggers like this: