আন্তর্জাতিক

আমি যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট, আমি ধোকা দেই না’

ওয়াশিংটন, মার্চ ০৩ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডকটকম/রয়টার্স)-পরমাণু অস্ত্র নির্মাণের চেষ্টা করলে ইরানে হামলা চালানো হবে বলে সরাসরি হুমকি দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বলেছেন তিনি ধোকাবাজি করেন না।

পাশাপাশি ইরানে আগাম হামলার বিষয়ে ইসরায়েলকেও সতর্ক করে দিয়েছেন ওবামা।

শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের আটলান্টিক সাময়িকীতে প্রকাশিত এক সাক্ষাৎকারে ওবামা এ কথা বলেন।

ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর সঙ্গে ওয়াশিংটনে বৈঠকের তিনদিন আগে এ সাক্ষাৎকার প্রকাশ করা হলো।

“আমি মনে করি, ইরান ও ইসরায়েল উভয় দেশের সরকারেরই বোঝা উচিত যে ইরানের পারমাণু বোমার অধিকারী হওয়ার চেষ্টাকে অগ্রহণযোগ্য বলে ঘোষণা করেছে যুক্তরাষ্ট্র, আমরা যা বলি তাই বোঝাই,” সাক্ষাৎকারে বলেন ওবামা।

এ সাক্ষাৎকারেই প্রথমবারের মতো ইরানের বিরুদ্ধে সামরিক পদক্ষেপ নেওয়ার বিষয়ে খোলাখুলি কথা বললেন ওবামা।

সব বিকল্পই টেবিলে আছে জানিয়ে তিনি বলেন, নিষেধাজ্ঞা ও কূটনৈতিক তৎপরতা যদি ইরানের পরামণু বোমার আকাঙ্খা দমন করতে ব্যর্থ হয় তবে ইরানে হামলা চালানো হবে।

“এর মধ্যে সামরিক অংশও আছে। আমার মনে হয় সবাই এটা বুঝতে পারবে,” বলেন ওবামা।

ইরান দাবি করে আসছে তারা পরামাণু বোমা নির্মাণের চেষ্টা করছে না। তাদের পরমাণু কর্মসূচির উদ্দেশ্য শান্তিপূর্ণ।

ইসরায়েলকে রক্ষার জন্য নেতানিয়াহুর ‘গভীর দায়িত্ববোধ’ থাকার দাবি সম্পর্কে তাকে প্রশ্ন করা হলে উত্তরে ওবামা বলেন, যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরায়েলের অবস্থানের মধ্যে কৌশলগত পার্থক্য থাকলেও আগবাড়িয়ে ইরানে হামলা চালানো ইসরায়েলের জন্য অবিবেচনা প্রসূত হবে।

“এমন এক সময় যখন ইরানের পক্ষে খুব বেশি সহানুভুতি কারো নেই ও তার একমাত্র সত্যিকার মিত্র সিরিয়ার অবস্থাও যখন তথৈবচ তখন আমরা কি এমন কোনো ধ্বংস চাইতে পারি যা কিনা ইরানের পক্ষে সহানুভুতির ক্ষেত্র তৈরি করে দেবে?” বলেন ওবামা।

আগামী সোমবার ওয়াশিংটনে বারাক ওবামার সঙ্গে বৈঠক করবেন ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু।

বৈঠকের আগে এক মন্তব্যে নেতানিয়াহু বলেছেন, “বিশ্বের মানচিত্র থেকে মুছে ফেলার হুমকির মুখে রাষ্ট্র হিসেবে ইসরায়েলের আত্মরক্ষার পদক্ষেপ নেওয়ার স্বাধীনতাকে সংরক্ষণ করতে চান তিনি।”

ইরানের পরামণু স্থাপনায় ইসরায়েল যে কোন সময় হামলা চালাতে পারে বলে শঙ্কায় আছে যুক্তরাষ্ট্র। কিন্তু ওবামা প্রশাসন তাদের কূটনৈতিক উদ্যোগ ও প্রচেষ্টার ফলাফল না দেখা পর্যন্ত ইরানে হামলা করতে চায় না। ইসরায়েলকে ধৈর্য ধরার আহ্বান জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

কিন্তু ইরানের পরামণু সমদ্ধকরণ কর্মসূচির সাফল্যে উদ্বিগ্ন হয়ে উঠেছে ইসরায়েল। তারা দরকার মনে করলে কাউকে না জানিয়েই ইরানে হামলা করবে বলে হুশিয়ারি দিয়েছে।

বছর খানেক আগে ইহুদি রাষ্ট্র ইসরায়েলকে বিশ্বের মানচিত্র থেকে মুছে ফেলার প্রত্যয় জানিয়েছিলেন ইরানের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আহমেদিনেজাদ।

Advertisements

About EUROBDNEWS.COM

Popular Online Newspaper

Discussion

Comments are closed.

%d bloggers like this: