বিনোদন

নায়িকা হওয়ার জন্য চলচ্চিত্রে আসিনি : রুমানা

This slideshow requires JavaScript.

বিনোদন প্রতিবেদক

ছোটপর্দার শিল্পীরা বড়পর্দায় গিয়ে খুব একটা সুবিধা করতে পারেন না। টিভিনাটকের অভিনেত্রী রুমানা বছর চারেক চলচ্চিত্রে নাম লেখালে অনেকেই ঠোঁট উল্টেছিলেন। রুমানা হাল ছাড়েননি। বাঁকা কথা গায়ে না মেখে চোখ বুঁজে কাজ করে গেছেন। চলচ্চিত্রে নিজেকে প্রমাণের পাশাপাশি রুমানা এবার জয় করে নিয়েছেন স্বীকৃতি। ‘ভালোবাসলেই ঘর বাঁধা যায় না’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য তিনি পেয়েছেন ২০১০ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার।

রুমানাকে অভিনন্দন জানিয়ে এই অর্জনের অনুভূতি জানতে চেয়েছিল বাংলানিউজ। রুমানা বললেন, এটা আসলে আমার জন্য কিছুটা অবিশ্বাস্য। কারণ মাত্র চার বছর হলো চলচ্চিত্রে কাজ করছি। সবমিলিয়ে অভিনয় করেছি ২৬টা ছবিতে। আমার চেয়ে অনেক সিনিয়র অভিনেত্রী আছেন, তাদের টপকে আমি যে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাবো; এরকম ভাবনা আমার মোটেও ছিল না। তাই খবরটা যখন শুনি, বেশ চমকে গিয়েছিলাম।

রুমানা আরো বললেন, ‘ভালোবাসলেই ঘর বাঁধা যায় না’ ছবিটি আমার পছন্দের একটি ছবি। এতে কাজ করার সময়ই আমার খুব ভালো লেগেছিল। আমার প্রত্যাশা অনুযায়ী, ছবিটি ব্যবসা সফল হয়। পুরস্কার পাওয়াটা হচ্ছে বাড়তি পাওয়া। এই পুরস্কার আমাকে ভবিষ্যতে আরো ভালো অভিনয় করতে অনুপ্রাণিত করবে।

চলচ্চিত্রে রোমানার যাত্রা হয়েছিল পিএ কাজল পরিচালিত ‘এক টাকার বউ’ ছবি দিয়ে। প্রথম ছবিটিই ছিল ব্যবসাসফল। এরপর একে একে ‘প্রেমে পড়েছি’, ‘বিয়ে বাড়ি’, ‘ভালোবাসলেই ঘর বাঁধা যায় না’, ‘মা আমার চোখের মণি’ প্রভৃতি ব্যবসাসফল ছবি উপহার দেন তিনি। যদিও রুমানার বিরুদ্ধে কড়া সমালোচনা, এখনও তিনি নিজেকে একক নায়িকা হিসেবে প্রমাণ করতে পারেননি। ঢালিউডের  চলচ্চিত্রে বেশ কিছুদিন ধরেই দেখা যাচ্ছে ত্রিভুজ প্রেমের গল্প প্রাধান্য পাচ্ছে। আর এই ত্রিভুজ প্রেমের ছবিতে শাকিব খান-অপু বিশ্বাস জুটির সঙ্গে আরেকটি ‘প্যারালাল হিরোইন’ হিসেবে দেখা যাচ্ছে রুমানাকে।

‘ভালোবাসলেই ঘর বাঁধা যায় না’ ছবিতেও রুমানা ছিলেন দ্বিতীয় নায়িকা। এ প্রসঙ্গে রুমানার দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তিনি বললেন, সত্যি কথা বলতে কি আমি চলচ্চিত্রে এসেছি শুধুমাত্র অভিনয় করার জন্য। নায়িকা হওয়ার জন্য নয়। ভালো চরিত্র পেলে যেকোনো চরিত্রে অভিনয় করতে আমার আপত্তি নেই। প্রথম বা দ্বিতীয় নায়িকা আর একক বা দ্বৈত নায়িকা নিয়ে আমি আপাতত ভাবছি না। তারপরও যদি জানতে চান, একক নায়িকা হিসেবেও বেশকিছু ছবিতে আমি কাজ করছি। যার মধ্যে রয়েছে ‘কাজের মানুষ’, ‘সবুজ কেন অপরাধী’, ‘কাছের শত্রু’ ইত্যাদি।

শোবিজে রুমানার অভিষেক হয়েছিল মডেলিংয়ের মাধ্যমে, এরপর আসেন টিভি নাটকে। বছর চারেক আগে নাম লেখান চলচ্চিত্রে। বর্তমানে চলচ্চিত্রকে বেশি গুরুত্ব দিলেও ভুলে থাকননি টেলিভিশন মিডিয়া। চলচ্চিত্রের পাশাপাশি এখনো প্রায়ই তাকে টিভিনাটকে অভিনয় করতে দেখা যায়। সম্প্রতি তিনি অভিনয় করলেন মাসুম রেজার রচনা ও জাহিদ হাসানের পরিচালনায় ‘সুইট মানে মিষ্টি’ নামের নতুন একটি ধারাবাহিক নাটকে। এছাড়াও  দীন মোহাম্মদ মন্টু পরিচালিত ‘অনুভূতির ছোঁয়া তুমি’ নাটকে একটি রোমান্টিক চরিত্রে তাকে দেখা যাবে।

Advertisements

About EUROBDNEWS.COM

Popular Online Newspaper

Discussion

Comments are closed.

%d bloggers like this: