জাতীয়

বাংলাদেশ সরকারের ডাকেই ইউএস স্পেশাল ফোর্স: পেন্টাগন

ঢাকা: বাংলাদেশ সরকারের আমন্ত্রণেই নানা কাজে যুক্তরাষ্ট্রের স্পেশাল ফোর্স বাংলাদেশে পাঠানো হচ্ছে বলে জানিয়েছে পেন্টাগন।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ দপ্তরের ডিউটি অফিসার লেফটেন্যান্ট কর্নেল গ্রেগরি  রোববার দুপুরে  এ কথা জানান।

বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের স্পেশাল ফোর্স সম্পর্কিত তথ্য জানতে পেন্টাগনে যোগাযোগ করা হলে লেফটেন্যান্ট কর্নেল গ্রেগরি বলেন, ‘রুটিনমাফিক নানা কাজেই ইউএস স্পেশাল ফোর্সের সদস্যরা বাংলাদেশে যায়। এছাড়া বাংলাদেশ সরকারও আমন্ত্রণ জানায় স্পেশাল ফোর্সকে।’

তিনি বলেন, ‘ইউএস স্পেশাল ফোর্স বাংলাদেশকে নানা বিষয়েই সহায়তা দিয়ে থাকে।’

ইউএস স্পেশাল ফোর্স বাংলাদেশে নানা ধরনের অনুশীলন এবং বিশেষজ্ঞ পর্যায়ে ভাব-বিনিময় করে, যা বাংলাদেশের নিরাপত্তা বাহিনীর সক্ষমতা বৃদ্ধিতে সহায়ক হয় বলেও  জানান লেফটেন্যান্ট কর্নেল গ্রেগরি।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের নিরাপত্তা বাহিনী এবং সরকারের আমন্ত্রণেই স্পেশাল ফোর্সের সদস্যরা বাংলাদেশে আসে।’

লেফটেন্যান্ট কর্নেল গ্রেগরি বলেন, ‘দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলে বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্রের একটি অন্যতম সহযোগী দেশ।’

প্রসঙ্গত, জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদবিরোধী অভিযানে সহযোগিতার অংশ হিসেবে বাংলাদেশসহ দক্ষিণ এশিয়ার পাঁচটি দেশে যুক্তরাষ্ট্রের স্পেশাল ফোর্স অবস্থান করছে বলে জানিয়েছেন মার্কিন বাহিনীর প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের (প্যাসিফিক কমান্ড) কমান্ডার অ্যাডমিরাল রবার্ট উইলার্ড।

বাংলাদেশের সামরিক বাহিনীর জনসংযোগ শাখা ‘আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর’ সূত্রের খবর, এই মুহূর্তে যুক্তরাষ্ট্রের স্পেশাল ফোর্সের সাত সদস্যের একটি দল সন্ত্রাসবাদ দমন বিষয়ক প্রশিক্ষণ দিতে বাংলাদেশে অবস্থান করছে। সিলেট ক্যান্টনমেন্টে গত শনিবার থেকে মাসব্যাপী ওই প্রশিক্ষণ শুরু হয়েছে।

পেন্টাগনের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা উইলার্ড জানান, সন্ত্রাসবিরোধী কার্যক্রমের সক্ষমতা এবং সমুদ্র এলাকার নিরাপত্তা বাড়াতে বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল, শ্রীলঙ্কা ও মালদ্বীপে প্যাসিফিক কমান্ড স্পেশাল ফোর্স নিয়োগ করেছে।

Advertisements

About EUROBDNEWS.COM

Popular Online Newspaper

Discussion

Comments are closed.

%d bloggers like this: