প্রবাস বাংলা

পদত্যাগ করে নির্বাচন দিনঃ ফিনল্যান্ড বিএনপি’র কর্মীসভায় মহিউদ্দিন জিন্টু

This slideshow requires JavaScript.

মোস্তাক সরকার, হেলসিংকিঃ তত্ত্বাবধায়ক সরকার পুনর্বহালের বিল পাস করে, পদত্যাগ করে নির্বাচন দিতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন সুইডেন বিএনপির সভাপতি মহিউদ্দিন আহমেদ জিন্টু।
হেলসিংকির সাবওয়ে রেষ্টুরেন্টে বৃস্পতিবার ফিনল্যান্ড বিএনপির কর্মীসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
তিনি বলেন, ‘১/১১ এর ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়ে অতন্দ্র প্রহরীর মতো গণতন্ত্র ও জাতীয়তাবাদী শক্তিকে রক্ষা করেছিলেন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া। গণতন্ত্র হত্যার সেই ষড়যন্ত্র এখনো চলছে।’

এতে প্রধান বক্তা ছিলেন সুইডেন বিএনপির সাধারন সম্পাদক এমদান হোসেন কচি। ফিনল্যান্ড বিএনপির সভাপতি জামান সরকারের সভাপতিত্বে এ কর্মীসভায় অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন ফিনল্যান্ড জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক মুজিবুর রহমান হিরক ও ফিনল্যান্ড যুবদলের সভাপতি মিজানুর রহমান মিঠু। কর্মীসভার শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ফিনল্যান্ড বিএনপি’র সাধারন সম্পাদক সাইফুল আলম খান তপন এবং কোরআন থেকে তেলওয়াতে কালাম পাঠ করেন ওবায়দুর রহমান ওবায়েদ।
সুইডেন বিএনপি সভাপতি জিন্টু বলেন, ‘গণতন্ত্র, স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষার আন্দোলনে ডাক দিয়েছেন দেশনেত্রী খালেদা জিয়া।’
খালেদা জিয়ার ডাকে সকল জাতীয়বাদী শক্তিকে রাজপথে থাকার আহ্বান জানিয়ে তিনি সরকারের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘বেগমখালেদা জিয়া আপনাদের ১০ জুন পর্যন্ত ৯০ দিন সময় দিয়েছেন। এখনো সময় আছে, ১০ জুনের মধ্যে সংসদে নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের বিল পাস করে পদত্যাগ করে নির্বাচন দিন।’

ঢাকা মহানগর বিএনপি’র প্রতিষ্ঠাতা সহ সভাপতি ও সুইডেন বিএনপির সভাপতি জিন্টু ফিনল্যান্ড বিএনপি’র সাফল্য কামনা করে বলেন, জামান ও তপনের নেতৃত্বে আদর্শিক ও ত্যাগী নেতাকর্মীদের সমন্বয়ে গঠিত এই কমিটির নেতৃবৃন্দ বেগম খালেদা জিয়ার চলমান দেশ বিরোধী সর্বগ্রাসী ষড়যন্ত্র ও সংকটের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে সহায়ক শক্তি হিসাবে আজ করবে।

প্রধান বক্তা ছিলেন সুইডেন বিএনপির সাধারন সম্পাদক এমদান হোসেন কচি বলেন, ‘বেঁধে দেয়া সময়ের মধ্যে সরকারযদি তত্ত্বাবধায়ক সরকারের বিল পাস না করেন, তাহলে ১২ মার্চের মহাসমাবেশে আর কি দেখেছেন, ১১ জুনের মহাসমাবেশে তার চেয়ে বেশি দেখবেন। সেদিন জনগণের স্রোত সামাল দিতে পারবেন না।’
ষড়যন্ত্রের অংশ হিসাবে দেশপ্রেমিক জাতীয়তাবাদী শক্তিকে নিশ্চিহ্ন করে দিতে মঈন উদ্দিন-ফখরুদ্দিনকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিলো।
তিনি বলেন, ‘ভয়ঙ্কর ষড়যন্ত্র আবার শুরু হয়েছে। এ ষড়যন্ত্র নস্যাতের আন্দোলনে সরাসরি নেতৃত্ব দিচ্ছেন দেশনেত্রী খালেদা জিয়া। দেশনেত্রী সবাইকে বলেছেন, বৃহত্তর জাতীয় ঐক্যের মাধ্যমে আর একবার লড়াই করতে চান। তাই সবাইকে বলতে চাই, গণতন্ত্র বিরোধী ফ্যাসিস্ট সরকারকে সরাতে হবে। তা না হলে দেশকে রক্ষা করা যাবে না। শক্ত হয়ে দাঁড়িয়ে দেশনেত্রীর হাতকে শক্তিশালী করে ষড়যন্ত্রকারীদেরকে সরে যেতে বাধ্য করতে হবে।’

কর্মীসভায় ফিনল্যান্ড বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি বদরুম মনির ফেরদৌস তার বক্তব্যে বলেন, যার কাছ থেকে দেশের মানুষ ভালো কথা শুনতে চান, সেই প্রধানমন্ত্রী যে ভাষায় কথা বলছেন তাতে কোনো রাজনৈতিক শিষ্টাচারতো নেইই, সাধারণ ভদ্রতাটুকুও নেই।’

সহ সভাপতি মোঃ আওলাদ হোসেন বলেন, বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানই শেখ মুজিবের বাকশাল বন্ধ করে দেশে বহুদলীয় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। তিনি বলেন, বিএনপি নয় আওয়ামী লীগই বিদেশ থেকে টাকা এনে নির্বাচন করেছে। বিএনপি কারো টাকায় রাজনীতি করে না।

কর্মীসভায় ফিনল্যান্ড স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারন সম্পাদক গাজি সামসুল আলম প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে বলেন, ‘কোনো রকম মিথ্যাচার করে জনগণের দৃষ্টি অন্য দিকে ফেরানোর চেষ্টা করবেন না। তাহলে জনগণই এর কঠোর জবাব দেবে।’

সভাপতির ভাষনে জামান সরকার বলেন, আজ যারা নিজেদের গণতন্ত্রের মানসকন্যা হিসেবে দাবি করেন, তারাই সেদিন জনগণের সঙ্গে বেঈমানি করে স্বৈরচারী এরশাদের সঙ্গে হাত মিলিয়ে নির্বাচনে গিয়েছিলো। বিএনপি কখনোই পেছনের দরজা দিয়ে ক্ষমতায় আসেনি আর যাওয়ার ইচ্ছাও নেই। কারণ এ দলটি সব সময়ই জনগণের ভোটে নিবার্চিত হয়েছে। তাই বিএনপির বিরুদ্ধে অপপ্রচার করে লাভ হবে না।

কর্মীসভায় অন্যতম বিশেষ আকর্ষন ছিল ফিনল্যান্ড বিএনপির ও এর অংগ সংগঠনের কার্যকরী পরিষদের সদস্যদের পরিচিত সভা। এতে প্রধান অতিথি ও সুইডেন বিএনপি’র সভাপতি মহিউদ্দিন আহমেদ জিন্টু লাল গোলাপ দিয়ে  তাদের বরণ করেন।

এতে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ফিনল্যান্ড বিএনপির সহ সভাপতি মোঃ মইনউদ্দিন, মোঃ নাসিরউদ্দিন, সাবেক ডাকসুর ছাত্রনেতা সানাউল হক বাহার, সহিদ রেজুয়ান, ফিনল্যান্ড যুবদলের সাধারন সম্পাদক নিজাম উদ্দিন নিজাম, মোস্তাক সরকার, মিলন কায়সার, মোঃ আনোয়ার হোসাইন, জাকির শিকদার, রাকিব খান আনন্দ, পারভেজ, আবদুল্লাহ আল মাসুদ আরিফ, ফাহিম সপনীল, তাজুল ইসলাম, শহীদুল হক, শেখ আকাশ, মিজানুর রহমান, মঞ্জু, আরিফ, নাজমুল হোসেন, রহমান, জয়নাল আবেদীন, মামুন আহমেদ, আবদুস সহিদ, জাভেদ আহমেদ, তানভীর আহমেদ, পারভেজ, সোহেল, আজিজুল, প্রিন্স, জাভেদ, সেলিম, আলী, রিপন কায়সার, আশরাফুল ইসলাম প্রমুখ।

 

Advertisements

About EUROBDNEWS.COM

Popular Online Newspaper

Discussion

Comments are closed.

%d bloggers like this: